করোনাযুদ্ধে কিউবার অভূতপূর্ব সাফল্যেও যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সবচেয়ে বেশি প্রশংসা কুড়িয়েছে কিউবা।

করোনায় বিধ্বস্ত দেশগুলোতে চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে দেশটির চিকিৎসক ও নার্সের বিভিন্ন দল।

দুই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে ১৯ দেশে মেডিকেল দল পাঠিয়ে কিউবা একটি অসম্ভব রেকর্ড তৈরি করেছে।

শুধু চিকিৎসাসেবাই নয়, দেশটির অসাধারণ জৈবপ্রযুক্তি দেখে চোখ ছানাবড়া হয়েছে খোদ যুক্তরাষ্ট্রের।

অথচ দীর্ঘদিন ধরে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে লড়াই করা সমাজতান্ত্রিক দ্বীপরাষ্ট্র কিউবাকে কার্যত পঙ্গু মনে করেন অনেকে।

যেখানে করোনায় লণ্ডভণ্ড হয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে অন্যের সাহায্যের দিকে তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে, সেখানে বিশ্বজুড়ে কিউবার এমন সহায়তাকে অনন্য দৃষ্টান্ত বলেছেন বিশ্লেষকরা।

করোনাযুদ্ধে কিউবার ঈর্ষণীয় সফলতার পরও বরাবরের মতোই সমালোচনায় ব্যস্ত যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর এক টুইটে বলেছে, করোনা মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক মিশনে চিকিৎসক পাঠানোর পেছনে কিউবার উদ্দেশ্য হচ্ছে– আপত্তিজনক কর্মসূচিতে অংশ নেয়া বন্ধ করায় হারানো অর্থ পুনরুদ্ধার করা।

যদিও যুক্তরাষ্ট্রের এসব সমালোচনা কানে নিচ্ছে না কিউবান সরকার। এমন সমালোচনার মধ্যেই দেশটি চীন ও ইউরোপের পর তাদের সহযোগিতার হাত এখন এশিয়ার দিকে প্রশস্ত করতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলবিষয়ক শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক অনলাইন সাময়িকী ‘দ্য ডিপ্লোম্যাট’ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

সেখানে জানানো হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় পঙ্গু হওয়া সত্ত্বেও কিউবা করোনা মোকাবেলায় মূল ভূমিকা নিয়ে সফল হয়েছে। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি কিউবার চিকিৎসকদের চাহিদাও বাড়ছে। বিশ্বের ৫৯ দেশে কিউবার ২৯ হাজারের বেশি পেশাদার চিকিৎসক কাজ করছেন।

দেশটি থেকে ইতালি, অ্যান্ডোরা, অ্যাঙ্গোলা, জ্যামাইকা, মেক্সিকো, ভেনিজুয়েলাসহ ১৯ দেশে নতুন চিকিৎসক দল পাঠানো হয়েছে। আর্জেন্টিনা, স্পেনসহ আরও কয়েকটি দেশ কিউবাকে অনুরোধ জানিয়েছে। এ পর্যন্ত কিউবার এক হাজারের মতো চিকিৎসক ও নার্স করোনা আক্রান্ত বিভিন্ন দেশে কাজ করছে। এবার কিউবা করোনা সংক্রমিত এশিয়ার দেশগুলোতে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করবে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ