করোনায় বিশ্বব্যাপী খাদ্য মন্দা, দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি করবে: প্রধানমন্ত্রী

করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী যে খাদ্য মন্দা সৃষ্টি হবে তাতে আগামীতে বিশ্বব্যাপী দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আমরা যদি খাদ্য উৎপাদন করে খাদ্য মজুত রাখতে পারি তাহলে আমরা দুর্ভিক্ষে পড়ব না। বরং আমরা অনেককেই সাহায্য করতে পারব। সেই ব্যবস্থা এখন থেকে নিতে হবে।

সোমবার সকাল ১০টায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে গণভবন থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্যকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বব্যাপী আজকে মহামারী আকারে দেখা দিয়েছে করোনাভাইরাস। যার ফলে হয়তো দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে। সেখান থেকে আমাদের দেশকে বাঁচানো এবং বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার হাত থেকে দেশকে রক্ষা করা, এটাই আমাদের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। সবাইকে অনুরোধ করব, আপনারা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করবেন।

তিনি বলেন, আমাদের মাটি উর্বর, মানুষ অনেক কর্মঠ, বাংলাদেশ খাদ্যে এখন উদ্বৃত্ত। কারও এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে। সেদিকে দৃষ্টি দেবেন। সেটাই আমি চাই। যে যা পারেন কিছু চাষ করেন। ধান কাটার পরে নতুন আরেকটা ফসল কি করা যায় আমাদের সেটা করা উচিত।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রায় ৯৫ হাজার কোটি টাকার উপরে প্রণোদনা ঘোষণা করেছি। আমরা এজন্য করেছি আমাদের অর্থনীতি সচল রাখার জন্য।

এর আগে গত ১৬ এপ্রিল ঢাকা বিভাগের ৯টি জেলা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, নরসিংদী, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, শরীয়তপুর, মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেন প্রধানমন্ত্রী।

তারও আগে চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল ও খুলনা বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসে দেশে নতুন করে আরও ১০ জনের মৃত্যু হওয়ায় সোমবার এ সংখ্যা ১০১ জনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া নতুন করে ৪৯২ জন শনাক্ত হওয়ায় এ সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৯৪৮ জনে।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ