‘বিগ বস’ ১৩তম সিজনের বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন সালমান খান

ভারতীয় টিভি রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস’র ১৩তম সিজন ছিল সম্ভবত এই শো’য়ের ইতিহাসে সবচেয়ে আলোচিত সিজন। ‘বিগ বস’ সংশ্লিষ্টদের কাণ্ড-কারখানা থেকে শুরু করে সালমান খানের এই শো ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়া, সবকিছুই বারবার সংবাদের শিরোনামে এনেছে এই জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো’কে। এবার বিজয়ীকে ঘিরেও উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

এবার কালার্স চ্যানেলের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠেছে। বহু প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে সদ্য সঞ্চালক সালমান খান ঘোষণা করেছেন এই সিজনের বিজয়ীর নাম। আর বিজয়ী হিসেবে সিদ্ধার্থ শুক্লাকে নির্বাচিত করার কারণেই বেজায় চটেছেন সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারকারীরা।

ট্রফি জেতার পাশাপাশি ৪০ লক্ষ টাকা নগদ পুরস্কারও জিতে নিয়েছেন সিদ্ধার্থ শুক্লা। এখানেই আপত্তি নেটিজেনদের। নেটিজেনদের একাংশের মত, ‘বিগ বস’ সিজন ১৩’য় জয়ী হওয়ার কোনওরকম যোগ্যতা নেই সিদ্ধার্থ শুক্লার। এমনকি, তারা চ্যানেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন, শো’য়ের বিজয়ী হিসেবে সিদ্ধার্থ শুক্লাকে আগে থেকেই নির্বাচিত করে রেখেছিল চ্যানেল।

‘বিগ বস’ নিয়ে কারচুপি ও পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠেছে চ্যানেলের বিরুদ্ধে। নেটিজেনরা মনে করেন, আগে থেকেই সিদ্ধার্থের নাম ঠিক করে রাখা হয়েছিল। সেই রাগ থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে এখন কালার্স চ্যানেলকে বয়কটের দাবি উঠেছে।

নেটিজেন ছাড়াও সিদ্ধার্থের বিজয়ী হওয়া নিয়ে অসন্তোষ দেখা গেছে কয়েকজন টিভি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যেও। এদের মধ্যে অন্যতম হলেন সিদ্ধার্থের সাবেক প্রেমিকা শিল্পা শিন্ডে। তিনি মনেপ্রাণে চেয়েছিলেন সিদ্ধার্থ যাতে না জেতে। ব্যক্তিগত জীবনে সিদ্ধার্থ তাকে মারধর করতেন বলে অভিযোগ তার।

অন্যদিকে ‘বিগ বস’র প্রাক্তন প্রতিযোগী কিশোরী মার্চেন্টও সিদ্ধার্থের থেকে অসিম রিয়াজকেই যোগ্য বলে উল্লেখ করেছিলেন। বাংলাদেশের দর্শকদের মধ্যেও অসিম রিয়াজ তুমুল জনপ্রিয় এবং টুইটারে ট্রেন্ডিংএ শীর্ষে থাকতেন প্রায়ই। তবে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিজয়ী হলেন সিদ্ধার্থ শুক্লা।

আরএফ

এ বিভাগের আরো সংবাদ